কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে ছাত্রলীগের তিন কমিটি জেলার বিলুপ্তির পর কেন্দ্রের বহাল


 স্টাফ রিপোর্টার | ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার, ১০:৩৭ | রাজনীতি 


কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা, পাকুন্দিয়া উপজেলা এবং কটিয়াদী উপজেলা এই তিনটি ইউনিটের ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেয় কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ। কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল গণি ঢালী লিমন এবং সাধারণ সম্পাদক মো. আশরাফ আলী স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘সাংগঠনিক কার্যক্রম গতিশীল করার লক্ষ্যে ও নতুন কমিটি করার লক্ষ্যে ইউনিট সমূহের বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হইলো।’

এদিকে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের এই ঘোষণার পরদিনই রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের এই প্রেস বিজ্ঞপ্তিকে অকার্যকর বলে ঘোষণা করেছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের প্রকাশিত প্রেস বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের অনুমতি সাপেক্ষে করা হয়নি বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে কারণ দর্শানোর জন্যও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক জরুরী সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কিশোরগঞ্জ জেলা শাখা কর্তৃক গত ২১/০৯/২০১৯ তারিখে প্রকাশিত প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রদানের মাধ্যমে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা, পাকুন্দিয়া উপজেলা এবং কটিয়াদী উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়, যা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের অনুমতি সাপেক্ষে করা হয়নি।

সুতরাং উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি অকার্যকর বলে ঘোষণা করা হল এবং সেই সাথে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউ (৩য় তলা) স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত)ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) এর নিকট কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করা হল।”




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর