কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


মিঠামইনে বিকাশ ও নগদে অর্থ সহায়তা পেয়েছেন ১০২৯৫ জন উপকারভোগী


 বিজয় কর রতন, মিঠামইন | ১৮ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ৭:০৪ | মিঠামইন 



কিশোরগঞ্জ জেলার ১৩টি উপজেলার মধ্যে একমাত্র মিঠামইন উপজেলায় ঈদ উপলক্ষে অসহায় ও কর্মহীন মানুষের মাঝে ভিজিএফ এর পরিবর্তে ও করোনা উপলক্ষে কর্মহীন মানুষের ত্রাণের পরিবর্তে মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, প্রতিবছর ঈদ উপলক্ষে অসহায় মানুষদের মাঝে ভিজিএফ এর ১০ কেজি করে চাল দেয়া হত। এছাড়া করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন মানুষের মাঝে চাল ও ডাল দেয়া হত।

এসকল সামগ্রী বিতরণে অনিয়ম এড়াতে এবছর মিঠামইনে উপজেলা প্রশাসন প্রত্যেক তালিকাভুক্ত অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে চালের পরিবর্তে মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে অর্থ প্রদান করেছে।

উপজেলার মোট ১০ হাজার ২৯৫ জন উপকারভোগীকে মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে তাদের সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়।

মিঠামইন উপজেলায় ৭ ইউনিয়নের ভিজিএফ তালিকায় ৬ হাজার ৭৯৫ জন সুবিধাভোগী রয়েছে। এছাড়া করোনার কারণে কর্মহীনদের তালিকায় রয়েছে ৩ হাজার ৫০০ জন।

ভিজিএফ এর বিপরীতে ৩০ লক্ষ ৫৭ হাজার ৭৫০ টাকা এবং ত্রাণ সামগ্রীর বিপরীতে ১৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা উপকারভোগীদের মোবাইল নম্বরে বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে পাঠানো হয়।

মঙ্গলবার (১৮ মে) পর্যন্ত তালিকাভূক্ত সকল সুবিধাভোগীদের মোবাইল নম্বরে বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে অর্থ সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রভাংশু সোম মহান জানান, ঈদের পূর্ব থেকে ৭ ইউনিয়নে অসহায় ও কর্মহীন প্রত্যেক পরিবারের মধ্যে ত্রাণ বাবত ৫০০ টাকা ও ভিজিএফ বাবত ৪৫০ টাকা করে বিকাশ ও নগদ এর মাধ্যমে দেয়া শুরু হয়।

ইউএনও আরও বলেন, মিঠামইন উপজেলাতেই মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে অর্থ প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নিজেদের মোবাইল নম্বরে টাকা পৌঁছে যাওয়ায় প্রতিটি পরিবারই খুশি।

এ প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার চেষ্টা করবেন বলেও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রভাংশু সোম মহান জানান।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর