কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর সক্রিয় সদস্য আটক


 স্টাফ রিপোর্টার | ৩ ডিসেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:১৩ | অপরাধ 


কিশোরগঞ্জে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের অভিযানে মো. হুমায়ূন কবির ওরফে ইমন (২৩) নামে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর সক্রিয় এক সদস্য আটক হয়েছে।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) রাতে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার সাদুল্লাহর চর বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

এ সময় তার কাছ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী লিফলেট, এ সংক্রান্ত কাগজপত্র, সিমসহ একটি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।

আটক হওয়া মো. হুমায়ূন কবির ওরফে ইমন ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইলের মৃত দেলোয়ার হোসেন হাদীসের ছেলে।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লে. কমান্ডার এম শোভন খান বিএন কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

লে. কমান্ডার এম শোভন খান বিএন কিশোরগঞ্জ নিউজকে জানান, র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর ৩/৪ জন সক্রিয় সদস্য কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার সাদুল্লাহর চর বাজার এলাকায় দাওয়াতি কার্যক্রম ও নাশকতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে সংগোপনে অবস্থান করছে।

এই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের আভিযানিক দল বুধবার (২ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার সাদুল্লাহর চর বাজার এলাকায় অভিযান চালায়।

অভিযানে জঙ্গি সংগঠনটির সক্রিয় সদস্য মো. হুমায়ূন কবির ওরফে ইমনকে আটক করে তার কাছ থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী লিফলেট, এ সংক্রান্ত কাগজপত্র, সিমসহ একটি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।

এ সময় তার সাথে থাকা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর বাকি সদস্যরা সুকৌশলে পালিয়ে যায়।

র‌্যাবের হাতে আটক মো. হুমায়ূন কবির ওরফে ইমনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে ময়মনসিংহে ২০১১ সালে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করে এবং তখন থেকেই কিশোরগঞ্জ এলাকায় এই সংগঠনের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত।

জিজ্ঞাসাবাদে সে আরো জানায়, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর প্রধান সংগঠক আব্দুল মতিন মেহেদী ওরফে মতিনুল ইসলাম এর চিন্তা-ভাবনা ও মতাদর্শ দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে সে এই সংগঠনের সমর্থক এবং সক্রিয় সদস্য হয়ে উঠে।

সে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের গোপন বৈঠকে নিয়মিত মিলিত হতো। উগ্রবাদ কায়েম করার জন্য বিভিন্ন কৌশলে কাজ করতো এবং সংগঠনের জন্য দাওয়াতের মাধ্যমে সদস্য সংগ্রহ করে সংগঠনকে সক্রিয় রাখতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতো।

তার সহযোগী অন্যান্যদের ব্যাপারে অনুসন্ধানপূর্বক গ্রেপ্তারের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এ বিষয়ে আটক মো. হুমায়ূন কবির ওরফে ইমন এর বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর