কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ম্যাজিস্ট্রেট সাঈদ তাঁর কর্মের মাধ্যমে কিশোরগঞ্জবাসীর মাঝে বেঁচে রয়েছেন


 স্টাফ রিপোর্টার | ৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১১:১০ | বিশেষ সংবাদ 


শোক, শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় কিশোরগঞ্জ কালেক্টরেটের সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রয়াত আবু তাহের মোহাম্মদ সাঈদকে স্মরণ করেছেন কিশোরগঞ্জবাসী। গত বছরের ৯ নভেম্বর আকস্মিকভাবে মৃত্যুবরণ করেন সৎ, সাহসী, নির্লোভ আর নিরহংকারী মানুষটি।

তাঁর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার (৯ নভেম্বর) বাদ জোহর কালেক্টরেট জামে মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

জেলা প্রশাসন আয়োজিত এই দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল কাদির মিয়া ছাড়াও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং সাধারণ মুসল্লিগণ অংশ নেন।

এছাড়া শহরের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদে মরহুম আবু তাহের মো. সাঈদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া এবং কোরআন খতম দেয়া হয়।

অন্যদিকে মরহুম আবু তাহের মো. সাঈদের নিজ গ্রাম নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার মাঝেরচর গ্রামের এতিমখানায় এতিমদের দুপুরের খাবার এবং কবরস্থানে দোয়া করা হয়।

কিশোরগঞ্জ জেলা কালেক্টরেটের সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু তাহের মোহাম্মদ সাঈদ গত বছরের (২০১৮ সাল) ৯ নভেম্বর শহরের পুরাতন কোর্ট এলাকার অফিসার্স ডরমেটরিতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে বিকাল ৫টার দিকে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরে হাসপাতাল থেকে লাশ কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গণে নিয়ে যাওয়া হয়। শেষ বারের মতো এক নজর দেখতে সেখানে শোকার্ত মানুষজন ছুটে যান।

এরপর রাতে শহরের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদ প্রাঙ্গণে মরহুমের নামাজে জানাজায় সর্বস্তরের হাজারো মানুষের ঢল নামে।

সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু তাহের মোহাম্মদ সাঈদ ৭ম বিসিএসে উত্তীর্ণ হয়ে প্রশাসন ক্যাডারে যোগদান করেন। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করা আবু তাহের মোহাম্মদ সাঈদ একজন সৎ, সাহসী, নির্লোভ ও নিরহংকারী মানুষ ছিলেন।

চিরকুমার আবু তাহের সাঈদ চাকুরির সিংহভাগ সময় কাটিয়েছেন কিশোরগঞ্জ জেলায়। এখানকার মাটি ও মানুষের সাথে তাঁর ছিল নিবিড় যোগাযোগ। এরকম একজন জনবান্ধব, সৎ ও সাহসী কর্মকর্তার মৃত্যুতে গোটা জেলায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

ম্যাজিস্ট্রেট আবু তাহের সাঈদ ছিলেন সততা আর নিষ্ঠার মূর্ত প্রতীক। অনেক বড় বড় অভিযান তিনি অত্যন্ত দৃঢ়তা এবং নিষ্ঠার সঙ্গে পরিচালনা করেছেন। তাঁর শারীরিক মৃত্যু ঘটলেও তাঁর মহৎ কর্মের মাধ্যমে আজো কিশোরগঞ্জবাসীর মাঝে বেঁচে রয়েছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর