কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


এসপি হারুনের জন্য নিরবে কাঁদছে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষ


 কিশোরগঞ্জ নিউজ ডেস্ক | ৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৭:৪৯ | বিশেষ সংবাদ 


প্রাচ্যের ডান্ডি হিসেবে খ্যাত নারায়ণগঞ্জ সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে নেতিবাচকভাবে সারাদেশে উপস্থাপিত হচ্ছিল। জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিও ছিলো অবনতির দিকে। ২০১৮ সালের ৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন কিশোরগঞ্জের কৃতী সন্তান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)। আর এর পর থেকেই বদলে যেতে শুরু করে পুরো জেলার চিত্র।

নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার হিসাবে মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) যোগদান করেই সৃষ্টি করেছেন অনন্য উদাহরণ। সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ ভাবে নারায়ণগঞ্জবাসীকে উপহার দিয়েছেন জাতীয় সংসদ নির্বাচন।

নির্বাচন শেষে শুরু করেছেন জুয়া, মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও জঙ্গি বিরোধী বিশেষ অভিযান। একে একে গ্রেপ্তার হয়েছে মাদক ব্যাবসায়ী, চাঁদাবাজ ও বড় বড় সন্ত্রাসী। উশৃংখল নারায়ণগঞ্জ হয়েছে শান্তির নারায়ণগঞ্জ।

গডফাদাররা নিজেদের গুটিয়ে নিয়েছেন পুলিশ সুপারের কঠিন অভিযানের কারণে। নারায়ণগঞ্জে সকল এমপি ও মন্ত্রীর টিমের সাথে হয়েছে মাদক জুয়া সন্ত্রাস চাঁদাবাজ ও জঙ্গি বিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচ।

নারায়ণগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ফুটপাত দখলমুক্ত ও হকার উচ্ছেদ করে ফিরিয়েছেন শহরের সৌন্দর্য। ঈদে দরিদ্র মানুষের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গী বিতরণ করেন এবং দুর্গাপূজায় দরিদ্র হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে শাড়ি ও লুঙ্গী বিতরণ করে ধর্মীয় সম্প্রীতির বিরল নজির স্থাপন করেছেন। সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজি না থাকায় ব্যবসার সুন্দর, নিরাপদ ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ বিরাজমান।

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, বিপিএম(বার), পিপিএম(বার) পুলিশ সুপার হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলায় যোগদানের পর ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ছয় বার ঢাকা রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার (এসপি) নির্বাচিত হয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জের চারদিকে যখন শান্তি আর স্বস্তির এমন সুবাতাস তখনই তাকে হঠাৎ নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দফতরে এসপি (টিআর) করা হয়। তাঁর হঠাৎ করে প্রত্যাহার হওয়ায় বিস্মিত হয়েছেন নারায়ণগঞ্জবাসী। এসপি হারুন কুচক্রী ও স্বার্থান্বেষী মহলের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন বলে মনে করছেন তারা।

তাদের অনেকের ভাষ্য, এসপি হারুনের নাম নারায়ণগঞ্জ এর ইতিহাসে স্বর্ণ অক্ষরে লিখা থাকবে। নারায়ণগঞ্জ এর সাধারণ মানুষ তাঁর জন্য নিরবে অঝরে কাঁদছেন।

মাত্র ১১ মাসের মাথায় এসপি হারুন অর রশীদকে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রত্যাহারের এই ঘটনা মানতে পারছেন না এলাকাবাসী। তার এই প্রত্যাহারে মর্মাহত নারায়ণগঞ্জবাসী এখনই নিজেদের নিরাপত্তাহীন ভাবছেন। পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদের প্রত্যাহার বাতিল করে তার পুনর্বহালের দাবিও জানিয়েছেন অনেকে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর