কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


বড় ভাইকে খুন করে কারাগারে, সেখানেই মৃত্যু


 স্টাফ রিপোর্টার | ২ আগস্ট ২০২১, সোমবার, ২:৩৩ | বিশেষ সংবাদ 



কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে শামসুল মুসলিমীন মতি ওরফে কেজি মতি (৫৫) নামে এক হাজতি মারা গেছেন। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় কারাগার থেকে সোমবার (২ আগস্ট) ভোররাত ৪টা ৫০মিনিটে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মারা যাওয়া হাজতি শামসুল মুসলিমীন মতি ওরফে কেজি মতি জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের চরটেকী গ্রামের হারুন-অর-রশীদের ছেলে।

বড় ভাইকে খুন করার অভিযোগে পাকুন্দিয়া থানায় দায়ের করা একটি মামলার আসামি হিসেবে ২০১৯ সালের ২৪ আগস্ট থেকে তিনি কারাগারে অন্তরীণ ছিলেন।

কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারের জেল সুপার মো. বজলুর রশীদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, হাজতি শামসুল মুসলিমীন মতি ওরফে কেজি মতি বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। তাকে গত ২৮ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

সেখান থেকে রিলিজ দেওয়ার পর থেকে তিনি কারা হাসপাতালে চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন। কিন্তু হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সোমবার ভোররাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত তাকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ভোররাত ৪টা ৫০মিনিটে হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাজতির মৃত্যুর বিষয়টি পরিবারের লোকজনদের জানানো হয়েছে বলে জেল সুপার মো. বজলুর রশীদ জানিয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের উপপরিচালক (তত্ত্বাবধায়ক) ডা. মো. হেলাল উদ্দিন জানান, হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক শামসুল মুসলিমীন মতি ওরফে কেজি মতি নামের ওই হাজতিকে মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।


[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর