কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


বাজিতপুরে হত্যা মামলায় ছেলের ফাঁসি, বাবা-মাসহ পাঁচজনের যাবজ্জীবন


 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সোমবার, ২:২৫ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে কৃষক মো. ছিদ্দিক মিয়া (৩৮) হত্যা মামলায় মো. জুয়েল মিয়া (২৭) নামে এক আসামিকে মৃত্যুদণ্ড এবং তার পিতা জজ মিয়া, মাতা রহিমা খাতুন ও ছোট ভাই কাকন মিয়াসহ পাঁচ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া রায়ে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা সবাই বাজিতপুর উপজেলার বড়মাইপাড়া হিলচিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

রায় ঘোষণাকালে মৃতুদণ্ডপ্রাপ্ত জুয়েল মিয়া, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জয়নাল আবেদীনের ছেলে মাহবুব হাসান রঞ্জু (৩৫), মৃত চান্দু মিয়ার ছেলে জজ মিয়া (৫২) ও তার স্ত্রী রাহিমা খাতুন (৪৭) আদালতে উপস্থিত থাকলেও মৃত মজলু মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৫) ও জজ মিয়ার ছেলে কাকন মিয়া (২০) পলাতক ছিল।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২২ জানুয়ারি বিকালে বাজিতপুর উপজেলার বরমাইপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন রাস্তায় বাথরুম নির্মাণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এর জেরে আসামিরা মৃত আহম্মদ আলীর ছেলে ছিদ্দিক মিয়াকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর জখম করে।

পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও পরে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নেওয়ার পথে রাস্তায় ছিদ্দিক মিয়ার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় পরদিন ২৩ জানুয়ারি নিহতের বড় ভাই মানিকুজ্জামান বাদী হয়ে ছয়জনের নামাল্লেখ করে বাজিতপুর থানায় হত্যা মামলা (নং-১০) দায়ের করেন।

মামলাটি পুলিশ ও সিআইডি তদন্ত করে। সবশেষ ২০১৬ সালের ৩০ জুন সিআইডির এসআই মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে চূড়ান্ত চার্জশীট দাখিল করেন।

সাক্ষ্য-জেরায় দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম সোমবার জনাকীর্ণ আদালতে রায় ঘোষণা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে এপিপি এডভোকেট আবু সাঈদ ইমাম এবং আসামিপক্ষে এডভোকেট অশোক সরকার মামলাটি পরিচালনা করেন।

ভিডিও:




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর