কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে নতুন ১১ জনের করোনা, দুইজনের মৃত্যু, সুস্থ ২৩, মোট আক্রান্ত ২২৯


 কিশোরগঞ্জ নিউজ রিপোর্ট | ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:৪৯ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জে সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) দিবাগত রাতে প্রকাশিত রিপোর্টে জেলায় নতুন করে ১১ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে। একই সঙ্গে নতুন করে ২৩ জন সুস্থ হয়েছেন। এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো দুইজন মারা গেছেন। ফলে করোনায় এ নিয়ে জেলায় মোট ৪০ জন মারা গেছেন।

করোনায় সর্বশেষ মারা যাওয়া দুইজনই কিশোরগঞ্জ সদরে শনাক্ত হয়েছিলেন। তাদের মধ্যে একজন কিশোরগঞ্জ সদরের বাসিন্দা এবং অপরজন টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতির বাসিন্দা। তারা দুইজনই পুরুষ। তাদের মধ্যে গত ২৯ জুলাই করোনা পজেটিভ শনাক্ত হন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বাসিন্দা (৬২) এবং গত ২৬ জুলাই করোনা পজেটিভ শনাক্ত হন টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতির বাসিন্দা (৩৭)।

এদিকে সর্বমোট শনাক্ত, সর্বমোট সুস্থ ও সর্বমোট আক্রান্ত এই তিন ক্ষেত্রেই জেলায় শীর্ষে রয়েছে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা। অন্যদিকে সর্বমোট মৃত্যুর ক্ষেত্রে জেলায় শীর্ষে রয়েছে ভৈরব উপজেলা।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) দিবাগত রাতে মোট ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত এই নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে জেলায় নতুন করে মোট ১১ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। অন্যদিকে ৮৩ জনের নেগেটিভ এসেছে।

নতুন ২৪ জনের করোনা পজেটিভ আসায় জেলার ১৩টি উপজেলায় মোট ২২১৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে মোট ১৯৫০ জন সুস্থ হয়েছেন। এছাড়া করোনার ছোবলে এই সময়ে ঝরে গেছে ৪০টি মূল্যবাণ প্রাণ।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২২৯ জন।

নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া ১১ জনের মধ্যে ৮ জন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায়। এছাড়া বাকি ৩ জনের মধ্যে তাড়াইল উপজেলায় ১ জন ও ভৈরব উপজেলায় ২ জন রয়েছেন।

নতুন সুস্থ হওয়া ২৩ জনের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার সর্বোচ্চ ১২ জন রয়েছেন। এছাড়া বাকি ১১ জনের মধ্যে করিমগঞ্জ উপজেলার ১ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলার ২ জন, কটিয়াদী উপজেলার ২ জন, ভৈরব উপজেলার ৪ জন ও বাজিতপুর উপজেলার ২ জন রয়েছেন।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ২২৯ জনের মধ্যে ৩০ জন হাসপাতালে এবং বাকি ১৯৯ জন নিজ নিজ বাড়িতে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

এছাড়া অন্য জেলায় শনাক্তকৃত ১ জন করোনা পজেটিভ এবং ১৪ জন সাসপেক্টটেড/নেগেটিভ বিভিন্ন হাসপাতালে আইসোলেশনে রয়েছেন।

শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রি-আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তিকৃত জরুরী রোগীসহ মঙ্গলবার (১১ আগস্ট), বুধবার (১২ আগস্ট) ও বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) সংগৃহীত ৯৪ জনের নমুনা কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়।

ল্যাবটিতে এই মোট ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বুধবার (১২ আগস্ট) পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ জেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ২২০৮ জন। বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) নতুন করে আরো ১১ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২১৯ জনে।

এদিকে জেলায় করোনাভাইরাস থেকে নতুন করে ২৩ জন সুস্থ হয়েছেন। এর আগে জেলায় সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল ১৯২৭ জন। ফলে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯৫০ জন।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান কিশোরগঞ্জ নিউজকে জানান, প্রকাশিত ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে নতুন করে ১১ জনের পজেটিভ ও ৮৩ জনের নেগেটিভ এসেছে।

ফলে বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ২২১৯ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৬৯৩ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ৫৬ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১২২ জন, তাড়াইল উপজেলায় ৯৮ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ১২২ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ১২৩ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১১৩ জন, ভৈরব উপজেলায় ৫৭৯ জন, নিকলী উপজেলায় ৪৭ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ১৮১ জন, ইটনা উপজেলায় ৩২ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৪০ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১৩ জন এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ৪০ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন। উপজেলাওয়ারী হিসেবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ১১ জন, হোসেনপুর উপজেলার ১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলার ২ জন, তাড়াইল উপজেলার ১ জন, কটিয়াদী উপজেলার ১ জন, কুলিয়ারচর উপজেলার ৩ জন, ভৈরব উপজেলার ১৪ জন, নিকলী উপজেলার ৩ জন, বাজিতপুর উপজেলার ২ জন, ইটনা উপজেলার ১ জন ও মিঠামইন উপজেলার ১ জন মৃত ব্যক্তি রয়েছেন।

সুস্থ ও মৃত ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে বর্তমানে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২২৯ জন। উপজেলাওয়ারী হিসাবে, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ১২২ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ৭ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ১ জন, তাড়াইল উপজেলায় ১৩ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ১৩ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৭ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৫ জন, ভৈরব উপজেলায় ৩০ জন, নিকলী উপজেলায় ১০ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ১৮ জন, মিঠামইন উপজেলায় ২ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১ জন বর্তমানে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি রয়েছেন।

জেলার ১৩ টি উপজেলার মধ্যে একমাত্র ইটনা উপজেলায় বর্তমানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোন রোগী নেই।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর