কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পাঠকের হৃদয় ছুঁয়ে এগিয়েই যাবে কিশোরগঞ্জ নিউজ


 সাইফুল হক মোল্লা দুলু, সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি, কিশোরগঞ্জনিউজ.কম | ১ জুন ২০২০, সোমবার, ১:২৭ | বর্ষপূর্তি উৎসব 


তথ্য প্রযুক্তির উৎকর্ষতা সামাজিক জীবনে বহুমাত্রিক প্রভাব ফেলছে। বর্তমান প্রযুক্তির কল্যাণে প্রতিদিন দ্রুত সময়ের মধ্যে আমরা সবকিছু জেনে যাচ্ছি। তাছাড়া নানা বিষয় ও সমস্যা তুলে ধরার পাশাপাশি তা সংরক্ষণও করতে পারছি। এখন একটি এনড্রয়েড মোবাইল ফোন দিয়েই আমরা সারা বিশ্বের সাথে যোগাযোগ ও তথ্য আদান-প্রদান করতে পারি।

বর্তমান বাস্তবতায় আমরা অনেকটা আসক্তির পর্যায়ে পৌঁছে গেছি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, অনলাইন অথবা মুঠোফোনটি কয়েক ঘন্টা আমাদের সাথে না থাকলে আমরা কেমন জানি একা হয়ে যাই।

তবে, এই প্রযুক্তির কল্যাণ  ইতিবাচক-নেতিবাচক দু‘টো বিষয়ই আমাদের কাছে সুযোগ উন্মোচন করেছে। বিশেষ করে আমরা যারা সাংবাদিকতা পেশায় নিজেকে সম্পৃক্ত করেছি। তারা বিষয়টি সহজেই বুঝতে পারি।

এখন ইচ্ছে করলেই আমরা একটি বা দুইটি প্যানড্রাইভে পুরো সংবাদ ধরে রাখতে পারি। আবার যদি কোন তথ্যে ঘাটতি থাকে তাহলে গুগলে গিয়ে মোটামুটি সবকিছু পূরণ করা সহজে হয়ে যায়।

কিন্তু তথ্য প্রযুক্তির এই যে সুযোগটি তা পেশাজীবী অধিকাংশই যথাযথভাবে শিখছে না। আজকাল অনেকেই নিজেকে ফাঁকি দিয়ে কাজ আয়ত্ব করছে না। নিজেকে উপযুক্তভাবে তৈরি না করে, গতিশীল না করে বরং প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে চুরি করছে। এই চুরি বিদ্যায় পারদর্শী সেজে আম-জনতাকে বুঝাতে চেষ্টা করে তিনি তার পেশাগত জীবনে যথেষ্ট পরিশ্রমী এবং দক্ষ। তাই নিজেকে প্রযুক্তির ব্যবহারে দক্ষ ও জ্ঞানী করে তুলতে হলে আগে অ-আ থেকে শুরু করতে হবে। অন্যথায় কপি করা ছাড়া গন্তব্য থাকবে না। আর এভাবে দীর্ঘ সময় পেশাকে ধরে রাখা সম্ভব হয়ে উঠবে না।

কয়েক বছর ধরে প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে একশ্রেণির ধান্দাবাজদেরও আগমন ঘটেছে। তারা অনলাইন মিডিয়া কিংবা নানা গ্রুপ নাম দিয়ে বিকাশমান প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্থানীয় সাংবাদিকতার বারোটা বাজিয়ে দিচ্ছে। আবার কোন কোন সুযোগ সন্ধানী তাদের অতীতের ভূমিকা গোপন করে অনলাইনে সাংবাদিকতা করে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হচ্ছে।

বিশেষ করে জেলা পর্যায়ে এসব অনলাইন মিডিয়া নিয়ন্ত্রণে যথারীতি তদারকি নেই। কিংবা যথাযথ পদ্ধতিতে অনুমোদন নেওয়ার প্রয়োজন পরে না। তাই এই সুযোগটি গ্রহণ করছে প্রতিক্রিয়াশীল এবং একাত্তরের বিতর্কিত লোকজন।

একটি জেলা শহরের অনলাইন মিডিয়ার পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, জেলায় ১০টি মিডিয়ার মধ্যে ৭টি মিডিয়ার কর্ণধার হচ্ছে একাত্তরের পরাজিত শক্তি। আর তাদের সহযোগিতা দিচ্ছে নব্য প্রগতিশীল ও রাজনৈতিক কতিপয় প্রভাবশালী নেতা। ক্ষুদ্র একটি নিউজ বা ছবির জন্য তারা দেখছে না; মিডিয়ার কর্ণধারের অতীত কর্মকা- বা তার উদ্দেশ্য ও নীতিগত বিষয়টির আবহ কোথায়।

পাশাপাশি একটি অফিস ঘর ও জনবল নিয়ে একটি অনলাইন চালাতে মাসে কত টাকা খরচ হয়। সেই টাকার উৎস কোথায়। এসব খরচ যোগাতে তারা বিত্তবান, রাজনৈতিক দলোর কতিপয় নেতা-কর্মী, জনপ্রতিনিধিদের দ্বারস্ত হয় এবং দালালিতে লিপ্ত হয়।

আমাদের তদাকথিত নেতাদের এসব দেখার সময় নেই! তারাও এ নেতিবাচক স্রোতে গা ভাসিয়ে দেয়। ফলে তথ্য প্রযুক্তি এক শ্রেণির টাই পরা টাউট তৈরি করছে তা নির্দ্বিধায় বলা যায়। এদের লাগাম না ধরলে বর্তমান নানাবিধ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডসহ সরকারের ‘ভিশন’ বাধাগ্রস্ত হবে। কারণ বর্তমান সরকার তৃতীয় মেয়াদ অতিক্রান্ত করায় বলা যায় একটি দীর্ঘ সময় দেশ চালাচ্ছে। এই সুযোগে প্রতিক্রিয়াশীল পরাজিত শক্তি ও তাদের প্রজন্মরা খোলস পাল্টিয়ে মিশে গেছে বর্তমান ক্ষমতাসীনদের সকল শাখা-প্রশাখায়। ফলে চিনতে ভুল হয়। আসলে মিডিয়ার কর্ণধার কার প্রতিনিধিত্ব করছে। এইসব সুযোগ সন্ধানীরা সব-সময় ছিল। তাদের যে কোন মূল্যে প্রতিহত করতে হবে।

আমাকে বলা হয়েছিল কিশোরগঞ্জ নিউজ অনলাইন পোর্টালের চার বছরে পদার্পণ উপলক্ষে একটি লেখা তৈরি করতে। আর তা করতে গিয়ে এসব প্রশ্নের অবতারণা। কারণ লিখতে গেলে কিছু বিষয় অবচেতন মনে এসে যায়। লিখতে গিয়ে প্রাথমিক চিন্তার ধারাবাহিকতা থেকে এসব প্রশ্ন সামনে এসেছে। কারণ প্রাত্যহিক জীবনের চলার পথে এদের সাথে দেখা হয় কথা হয়। সুতরাং সচেতন হিসেবে এদের কর্মকাণ্ড একবারে বাদ দিয়ে কিছু উপস্থাপন করা নীতি-নৈতিকতার বিসর্জন দেওয়া।

যা হোক কিশোরগঞ্জ নিউজ অনলাইন পোর্টাল চার বছরে পদার্পণ করায় আমি ব্যক্তিগতভাবে আনন্দিত, অভিভূত ও গর্বিত। কারণ অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে পিছিয়ে থাকা একটি জেলা শহরে কিশোরগঞ্জ নিউজ অনলাইন পোর্টালটি দাপটের সাথে তার স্বকীয়তা ধরে রেখে আগামী সুন্দরের পথে চলছে।

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মধ্য দিয়ে পাঠক শ্রেণির কাছে তার গ্রহণযোগ্যতা সন্দেহাতীত। কারণ দেশে-বিদেশে অনেক বন্ধু-বান্ধব ফোনে কিংবা ছুটিতে আসলে বলেন, তারা সুদূর বিদেশে থেকেও কিশোরগঞ্জ নিউজ অনলাইন পোর্টালটি দেখে থাকেন। তাদের এক কথা, কিশোরগঞ্জ জেলার মানুষ হিসেবে জেলার নিউজ আগে জানতে চাই, আর তাই প্রথমে কিশোরগঞ্জ নিউজে ঢুকি।

আবার অনেকেই বলেছেন, বড় বড় মিডিয়ায় যেসব নিউজ পড়ি তা অধিকাংশ দেখি কিশোরগঞ্জ নিউজ এ আগে আসে। তাই জেলার খবর জানতে তারা কিশোরগঞ্জ নিউজের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছেন।

গত বছর সৌদি আরবে হজ্বব্রত পালন করার সময় অনেককে দেখেছি কিশোরগঞ্জের খবর জানতে মোবাইল ফোনে কিশোরগঞ্জ নিউজে ঢুকছে। আবার সংবাদ পড়ে সাথীদের জানিয়ে দিচ্ছে। আজ সারাদিন কিশোরগঞ্জ জেলায় সংবাদ হওয়ার মতো কি কি ঘটনা ঘটেছে।

যতটুকু খবর রাখি কিশোরগঞ্জ নিউজ ১৮২টি দেশে বাঙালি প্রবাসীরা প্রতিদিন পড়ছেন। নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলা ও গুলির ঘটনায় হতাহতসহ অনেক খবর কিশোরগঞ্জ নিউজ এ পাঠকরা পেয়েছে। যেখানে বড় বড় মিডিয়া দিতে পারিনি। সে গ্যাপটি কিশোরগঞ্জ নিউজ পূরণ করে পাঠকদের তৃষ্ণা মিটিয়েছে।

বর্তমান করোনার প্রাদুর্ভাবের সারা জেলার পরিস্থিতি প্রতিদিন আপ-ডেট নিউজ কভার করে যাচ্ছে কিশোরগঞ্জ নিউজ। দীর্ঘ রাতের কোনো ঘটনাও তারা বাদ দিচ্ছে না। এক রকম ক্লান্তিহীনভাবে কিশোরগঞ্জ নিউজ দায়বদ্ধতা থেকে কাজ করে যাচ্ছে।

বর্তমানে এর ফেসবুক পেজে ফলোয়ার সংখ্যা ৭০ হাজারের ওপরে। ফেসবুক ছাড়াও সরাসরি ওয়েবসাইটে ঢুকেও পাঠকের একটি বড় অংশ কিশোরগঞ্জ নিউজ পড়ছেন। নিজেদের ভালো লাগার খবরগুলো শেয়ারের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছেন ফেসবুকসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তবে, ইদানিং স্থানীয় হট নিউজ বিলম্বে ছাড়ছে কিশোরগঞ্জ নিউজ। কারণ যথাযথ সময়ে দিয়ে দিলে জাতীয় মিডিয়ায় কাজ করছেন এমন অনেক কর্মী ঝাঁপিয়ে কপি পেস্ট করে পাঠিয়ে দেন। এতে করে যিনি কষ্ট করে নতুন সংবাদটি পরিবেশন করলেন; তিনি স্বাভাবিকভাবেই মানসিক ও স্নায়বিক চাপে ভুগেন। তার পরিশ্রমের ফসল যেন অন্যরা লুটে নিচ্ছে।

তবে, বর্তমানে এ কথাও সত্য যে, সময়ের সামান্য ব্যবধানে আসলে সবকিছুই আমাদের কাছে চলে আসে। শুধুমাত্র কিছু সময়ের ব্যবধান। তাই এ নিয়ে কষ্ট বা দুঃখ পাবার কিছু নেই। পাশাপাশি বলতে চাই, যে সত্যিকার অর্থেই সাংবাদিকতা করেন। এমন ব্যক্তি সব-সময় মাঠে সক্রিয় থাকেন। ফলে সক্রিয় ব্যক্তির জন্য কোন তথ্যই গোপন থাকে না।

চতুর্থ বর্ষে পদার্পণে দোয়া করি শত আর্থিক সীমাবদ্ধতার মধ্যে কিশোরগঞ্জ নিউজ তার নীতি-আর্দশ নিয়ে আগামীদিনে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবে।

পরিশেষে কিশোরগঞ্জ নিউজ এর‘ প্রধান সম্পাদক মো. আশরাফুল ইসলাম এবং তার সহযোগীদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তারা সত্য ও সুন্দরের পথে নতুন প্রজন্মকে পথ দেখাবে। সময়ের সাথে সাথে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। প্রযুক্তির আলো ছড়িয়ে পড়ুক কিশোরগঞ্জ নিউজ এর মাধ্যমে দেশ থেকে দেশান্তরে। সেই সাথে উন্মোচিত হবে প্রতিক্রিয়াশীলদের মুখোশ।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর