কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জ সদরে চার করোনা পজেটিভের তিনজনই গাজীপুর ফেরত এক পরিবারের


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ১০:২০ | কিশোরগঞ্জ সদর 


কিশোরগঞ্জ জেলায় সর্বশেষ পাওয়া রিপোর্টে নতুন করে নতুন করে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ আসা এই ১৬ জনের মধ্যে একজন মৃত ব্যক্তি রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ মে) জেলায় সংগৃহীত এবং শুক্রবার (১৫ মে) জেলার ভৈরব উপজেলায় সংগৃহীত মোট ১৮২ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট মঙ্গলবার (১৯ মে) সন্ধ্যায় পাওয়া যায়। এতে একজন মৃত ব্যক্তিসহ মোট ১৬ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

ফলে মঙ্গলবার (১৯ মে) সন্ধ্যা পর্যন্ত পাওয়া নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ২৩৪ জনের করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ এসেছে।

নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়া ১৬ জনের মধ্যে জেলার ভৈরব উপজেলার মৃত ব্যক্তিসহ ৭ জন, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৪ জন, হোসেনপুর উপজেলার ৩ জন ও তাড়াইল উপজেলার ২ জন রয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজেটিভ আসা চারজনের মধ্যে তিনজন মহিলা ও একজন পুরুষ। এই চারজনই অন্য জেলা থেকে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে কিশোরগঞ্জ সদরের নিজ এলাকায় ফিরেছিলেন।

এই চারজনের মধ্যে তিনজনই এক পরিবারের। কিশোরগঞ্জ শহরের হয়বতনগর মনার বাড়ি এলাকার পরিবারটিতে মা (৪৫) ও তার দুই মেয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। দুই মেয়ের মধ্যে পাঁচ বছর বয়সী এক শিশু রয়েছে। অন্য মেয়ের বয়স ১৫ বছর।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, তিন জন আক্রান্ত হওয়া পরিবারটি গাজীপুরের জয়দেবপুর চৌরাস্তা এলাকার ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। গৃহকর্তা উত্তরায় একটি প্রাইভেট ফার্মে চাকুরী করেন।

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে পরিবারটি কিশোরগঞ্জ শহরের হয়বতনগর মনার বাড়ি এলাকার বাসায় ফেরার পর গত বৃহস্পতিবার (১৪ মে) পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল।

অন্যদিকে কিশোরগঞ্জ সদরে নতুন করোনা শনাক্ত হওয়া চারজনের মধ্যে একমাত্র পুরুষ কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার যশোদল মনিপুরঘাট এলাকার বাসিন্দা। তিনি একজন আনসার সদস্য।

নরসিংদী জেলার সোনালী ব্যাংকের একটি শাখায় তিনি কর্মরত রয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার (১৪ মে) তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল।

সোমবার (১৮ মে) পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১৯ জন। নতুন করে আরো ৪ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩ জনে।

আক্রান্ত এই ২৩ জনের মধ্যে একজন মৃত ব্যক্তি রয়েছে। মৃত ব্যক্তির নাম নিতাই (৬০)। সে কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের বড়বাজার টেনু সাহার গলি এলাকার নিতাই গত ১৭ এপ্রিল মারা যায়।

বাকি ২২ জনের মধ্যে ইতোমধ্যে ১৭ জন করোনাভাইরাস মুক্ত হয়ে সুস্থ হয়ে ওঠেছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর