কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


দেড় শতাধিক পরিবারের পাশে মানবিক সংগঠন ‘খারকোট-শিবনগরঃ মানুষের জন্য আমরা’


 স্টাফ রিপোর্টার | ১ মে ২০২০, শুক্রবার, ১:০৭ | সারাদেশ 


ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার দুই প্রতিবেশী গ্রাম খারকোট-শিবনগর এর শিক্ষিত ও সুশীল যুবকদের সমন্বয়ে গড়া মানবিক সংগঠন 'খারকোট-শিবনগরঃ মানুষের জন্য আমরা' পবিত্র রমযান উপলক্ষে আবারো ত্রাণ নিয়ে গ্রামের নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।

মানবিক, স্বেচ্ছাসেবী এবং অরাজনৈতিক এ সংগঠনের যুবকদের একতাবদ্ধ ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া গ্রামের মানবিক ও সামর্থ্যবান কিছু মানুষের আর্থিক সহায়তায় দুই গ্রামের ৫৬ পরিবার রমজানের খাদ্য ও ঈদ সামগ্রী পেয়েছে।

প্রতিটি পরিবারই সহায়তা হিসেবে দুই কেজি বুট, দুই কেজি মুড়ি, এক কেজি খেজুর, দুই কেজি সয়াবিন তেল, দুই কেজি পেঁয়াজ, পাঁচ কেজি আলু, এক কেজি লবণ, আধা কেজি সেমাই, এক প্যাকেট গুঁড়ো দুধ ও এক কেজি চিনি পেয়েছেন।

এই সংগঠনের উদ্যোগেই মাত্র দুই সপ্তাহ আগে দুই গ্রামের করোনাভাইরাস বিপর্যস্ত আরো ১০০ পরিবার পেয়েছিল দশ কেজি চাল, দুই কেজি ডাল, দুই কেজি সয়াবিন তেল, এক কেজি পেঁয়াজ, তিন কেজি আলু, এক কেজি লবণ, একটি হাত ধোয়ার এবং একটি কাপড় কাঁচার সাবান করে ত্রাণ সহায়তা।

এছাড়াও কয়েকটি পরিবারকে চিকিৎসা ও অর্থ সহায়তা করা হয়েছিল। এভাবে পরপর দুইবারে দুই গ্রামের দেড় শতাধিক দরিদ্র পরিবারের মাঝে দুই লক্ষ টাকার ত্রাণ বিতরণ করেছে এ সংগঠন।

ত্রাণ কার্যক্রমের সমন্বয়ক হিসাবে নিরলসভাবে কাজ করেছেন সংগঠনের অন্যতম ও মূল উপদেষ্টা এবং গ্রামেরই সন্তান টিকে গ্রুপের ন্যাশনাল সেলস ম্যানেজার তাজুল ইসলাম নীরু, ন্যাশনাল ব্যাংক পাকুন্দিয়া শাখার ম্যানেজার মোশারফ হোসেন এবং সৌদি প্রবাসী মো. ইকবাল ভুইয়া।

সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে এই মহতী উদ্যোগকে বাস্তবে রূপদান করেছেন বাবুল ভুইয়া, মামুন মিয়া (নরসিংদী), রুবেল ভুইয়া, সুমন ভুইয়া, রফিকুল ইসলাম সবুজ, আমিন ভুইয়া, আব্দুল লতিফ, নোমান মিয়া, জানু মিয়া, আব্দুল নুর, হাসান মিয়া, মামুন (শিবনগর নোয়াবাড়ি), রিপন ভুইয়া, নাসির সরকার, আতাউর রহমান ভুইয়া ও মাসুম আহমেদ।

সরেজমিনে মূল ভূমিকা পালন করেছেন তরুণযোদ্ধা শামীম সরকার, সাদ্দাম ভুইয়া, আব্দুস সবুর, ফরিদ মিয়া, আল আমিন, শফিউল্লাহ, জান্নাতুল সরকার, কবির আহমেদ, খালেক ভুইয়া পাখি, সুমন ভুইয়া, জিয়াউর রহমান ভুইয়া, মাহফুজ ভুইয়া, হোসেন মিয়া, লোকমান মিয়া, মামুন আহমেদ (খারকোট প. পাড়া), মারুফ মিয়া, শরিফ, রিপন, সানি, শফিক, আনসার আলী, তানভির সরকার, আবুল ইসলাম সরকার, রাব্বি, মনসুর আহমেদ, নাজমুল ভূঁইয়া প্রমুখ।

তাজুল ইসলাম নীরু বলেন, 'আমাদের দুই গ্রামের কোনো মানুষ, কোনো পরিবারই নিরীহ নয়, একা নয়। আমাদের যুবকরা আগলে রেখেছে- গ্রামের প্রতিটি মানুষকে, প্রতিটি পরিবারকে।'

এই মহতী উদ্যোগে অংশগ্রহণের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এবং কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন এখানে নাম না বলা অনেকের প্রতি যারা অর্থ দিয়ে, পরামর্শ দিয়ে এ কার্যক্রমকে সফল করেছেন।

অদূর ভবিষ্যতেও সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে গ্রামের কল্যাণে পাশে থাকবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর