কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ফেসবুকে গুজব রটনাকারী ইউপি সদস্য র‌্যাবের হাতে আটক


 স্টাফ রিপোর্টার | ৮ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ১২:০৪ | সম্পাদকের বাছাই  


বৈশ্বিক আলোচিত বিষয় ‘করোনা ভাইরাস’, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’ ও ‘বিভিন্ন বাহিনী’ সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দায়ে রিপন মিয়া (৩৫) নামে এক ইউপি সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্প।

আটক হওয়া ইউপি সদস্য মো. রিপন মিয়া ওরফে রিপুল মিয়া কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলার ঢাকী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার। সে ঢাকী ঠাকুরপাড়া গ্রামের মৃত দুলাই মিয়ার ছেলে।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত সাড়ে ১০টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত ঢাকী বাজার এলাকায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক সিনিয়র সহকারী পরিচালক চন্দন দেবনাথ এর নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করে।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক সিনিয়র সহকারী পরিচালক চন্দন দেবনাথ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সাম্প্রতিক সময়ে করোনা ভাইরাস একটি বৈশ্বিক আলোচিত বিষয়, যা নিয়ে বিভিন্ন কুচক্রী মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব রটানো সম্পর্কিত অপরাধ দমনের লক্ষ্যে র‌্যাব অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার ও আইনের আওতায় আনার জন্য নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত সাড়ে ১০টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত মিঠামইন উপজেলার ঢাকী বাজার এলাকায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক সিনিয়র সহকারী পরিচালক চন্দন দেবনাথ এর নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে ইউপি সদস্য মো. রিপন মিয়া ওরফে রিপুল মিয়াকে আটক করে তার কাছ থেকে একটি সিম্পনি ভি-১২০ মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

এই মোবাইল ফোন সেটে মো. রিপন মিয়া Ripul Member নামক ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বর্তমানে বৈশ্বিক আলোচিত বিষয় ‘করোনা ভাইরাস’, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’ ও ‘বিভিন্ন বাহিনী সম্পর্কে’ বিভিন্ন মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর অপপ্রচার চালানোর প্রমাণ পাওয়া যায়।

আটকের পর মো. রিপন মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, সে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ধরনের ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার করে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে বিভ্রান্তিমূলক বিভিন্ন ছবি ও পোস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারসহ উস্কানিমূলক গুজব রটিয়ে জনগণকে বিভ্রান্তি করার চেষ্টা করছে।

বর্তমান বৈশ্বিক আলোচিত বিষয় করোনা ভাইরাসের বাংলাদেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে বিভিন্ন মিথ্যা, বানোয়াট ও অপপ্রচারমূলক তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষূন্ন করাসহ দেশের চলমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করে আসছিল।

এছাড়া সে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে ফেসবুকে নানা ধরনের কটুক্তিকর তথ্য প্রচার করে। এসব ছাড়াও সে বিভিন্ন বাহিনী সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য প্রকাশের মাধ্যমে বাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করিছল।

এসকল কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কারণে দীর্ঘদিন যাবৎ র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ এর একটি বিশেষ দল তার উপর গোয়েন্দা নজরদারী চালিয়ে তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।

এ ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত অন্যান্য অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা অব্যাহত আছে এবং আটককৃত মো. রিপন মিয়ার বিরুদ্ধে কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর