কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভৈরবে জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও বিদায়ী শিক্ষকদের সংবর্ধনা


 সোহেল সাশ্রু, ভৈরব | ১২ মার্চ ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৯:০৩ | ভৈরব 


কিশোরগঞ্জের ভৈরবে উপজেলার সরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের আয়োজনে জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের সম্মাননা ও বিদায়ী শিক্ষকদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) বিকালে ভৈরব উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ভারপ্রাপ্ত উপজেলা শিক্ষা অফিসার নাদিরা আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুব্রত কুমার বণিক।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মাহবুব জামান, ভৈরব উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. ফাইজ উদ্দিন আকন্দ, ভৈরব উপজেলা ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর মো. দুলাল মিয়া ও সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার শাহরীমা সুলতানা।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ও মোজাফর বেপারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঞ্জুমান আরা রত্না, চণ্ডিবের হাজী আসমত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ গোলাম রব্বানী, ভৈরব সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রণয় কুমার দেবনাথ, পলতাকান্দা সৃজনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কবিতা চৌধুরী, রসুলপুর উত্তর পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আনোয়ার হোসেন, মিরারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুবুর রহমান ও অবসর প্রাপ্ত বিদায়ী শিক্ষক গজারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. ফিরোজ মিয়া, ভবানীপুর আ. মালেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন কিশোরগঞ্জ জেলার মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে ভৈরব উপজেলার শিক্ষার মান সবচেয়ে ভাল এবং শিক্ষকদের যোগ্যতা, সহ-শিক্ষা কার্যক্রম এবং নানা কর্মকাণ্ড জেলার মধ্যে ভৈরব উপজেলা সব দিক দিয়ে এগিয়ে।

বক্তারা আরো বলেন, ভৈরব থেকে জেলার যে সকল বিষয়ে প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করে তারা সবাই যোগ্য। আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত রাখার জন্য শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান।

আলোচনা সভা শেষে দুইজন বিদায়ী অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে প্রথমে ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধনা ও পরে তাদের হাতে শিক্ষকদের পক্ষ থেকে উপহার তুলে দেয়া হয়।

এছাড়া ২০১০ সালের শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের সম্মানে ভূষিত নাহিদ সুলতানা, ২০১৪ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মোহাম্মদ গোলাম রব্বানী, ২০১৯ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম, জেলার শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষিকা ফারহানা বেগম লিপি ও সহকারী শিক্ষক মো. মাসুম মিয়াকে ক্রেস্ট প্রদান করে সম্মাননা জানানো হয়।

শিক্ষকদের পক্ষ থেকে অতিথি, বিদায়ী ও সংবর্ধিত শিক্ষকদের ফুলের তোড়া দিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়।

সমগ্র অনুষ্ঠানটির সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন ও ইমরান হোসেন ভূইয়া।

অনুষ্ঠানে ভৈরব উপজেলার শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর