কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ভৈরব রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজে সাহিত্য ও সংস্কৃতি প্রতিযোগিতা


 সোহেল সাশ্রু, ভৈরব | ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, রবিবার, ১২:০২ | ভৈরব 


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভৈরবে তিন দিনব্যাপী সাহিত্য ও সংস্কৃতি প্রতিযোগিতার সমাপনী দিনে শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বেলা ১১টায় ভৈরব পৌর শহরের রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে কলেজ মিলনায়তনে এই পুরস্কার বিতরণী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ শরীফ আহমেদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রত্মতত্ত্ব অধিদপ্তর এর মহা-পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. হান্নান মিয়া।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা, কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদ প্যানেল চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা মির্জা মো. সোলায়মান, রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠাতা বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম, ভৈরব প্রেসক্লাব সভাপতি জাকির হোসেন কাজল, বাংলাদেশ প্রত্মতত্ত্ব অধিদপ্তর প্রাক্তন সহকারী প্রকৌশলী জাকির হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, আজ বাংলাদেশের বুক থেকে সাহিত্য সংস্কৃতি ঐতিহ্য হারিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এর দায়ভারও নিতে হবে আমাদেরকে। কারণ আমাদের সাহিত্য সংস্কৃতি চর্চা নেই বলে আজ তা বিলুপ্তির পথে।

ভৈরবে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চা করতে হবে। তাহলেই আমাদের সাহিত্য সংস্কৃতি ঐতিহ্য ধরে রাখা সম্ভব।

বক্তারা মহিলা কলেজ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, নারীরা আজ বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই তোমাদেরও ভয়ভীতি দূর করে সাহসিকতার সাথে এগিয়ে যেতে হবে।

তবে লেখাপড়ার আগে প্রথম শিক্ষা এবং আদর্শ হিসেবে আমরা মা-বাবাকেই পায়। আজ আমরা যে ভাষায় কথা বলছি সেটা আমাদের মায়ের ভাষা। মা-বাবাকে সম্মান এবং শ্রদ্ধার মাধ্যমে নিজের নীতি এবং নৈতিকতা শুরু করতে হবে।

ফেসবুক মোবাইলে ডুবে না থেকে কঠোর পরিশ্রম করে লেখাপড়ার মাধ্যমে এগিয়ে যেতে হবে। আজকে আমাদের দেশে যত কীর্তিমানরা আছে তারা এমনি এমনিতেই আমাদের গর্ব এবং অহংকার হিসেবে পরিণত হয়নি।

তাদের মেধা মনন, সাহিত্য চর্চা, নীতি ও নৈতিকতা সঠিক ব্যবহার করে কঠোর লেখাপড়ার মাধ্যমে আজ তারা আমাদের গর্ব ও অহংকার হিসেবে পরিণত হয়েছেন।

এ সময় শিক্ষার্থীদের তারা আরো বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সকল কার্যক্রমে অংশগ্রহণের মাধ্যমে সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে চর্চা করতে হবে।

আলোচনা শেষে অতিথিবৃন্দ কলেজ শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক যুগান্তর ভৈরব প্রতিনিধি আসাদুজ্জামান ফারুক, দৈনিক প্রথম আলো ভৈরব অফিস নিজস্ব প্রতিবেদক মো. সুমন মোল্লা, এনটিভি স্টাফ রিপোর্টার মোস্তাফিজুর রহমান আমিন প্রমুখ।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর