কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কানাডায় সর্বজনীন একুশে উদযাপন-২০২০ উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, ১২:৫১ | প্রবাস 


আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস -২০২০ উপলক্ষে কানাডায় প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টায় কানাডার টরেন্টোর ড্যানফোর্থ এভিনিউ এর ঘরোয়া রেস্টুরেন্টে এই প্রস্তুতিমূলক সভা অুনষ্ঠিত হয়।

প্রস্তুতিমূলক সভায় সভাপতিত্ব করেন কানাডাস্থ কিশোরগঞ্জ জেলা এসোসিয়েশনের সভাপতি সৈয়দ শামসুল আলম।

সভায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযথ মযার্দায় পালনের উপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

এসময় এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি তাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রফিক আলম, ব্যারিস্টার চয়নিকা দত্ত, গোলাম সারোয়ার, মাহবুব চৌধুরী, সাইদুন ফয়সাল, খোকন আব্বাস, আবুল আজাদ, মুজাহিদুন ইসলাম, মো. কফিল উদ্দিন পারভেজ, সাধ চৌধুরি, খন্দকার রাশেদ বাবু, রাসেল রহমান, সবুজ চৌধুরী টিটু, এবাদ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কানাডাস্থ কিশোরগঞ্জ জেলা এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি তাজুল ইসলাম জানান, ১৯৮৮ সালে কানাডার টরেন্টো শহরের ড্যানফোর্থ এভিনিউ এর প্রিয়াঙ্গন পার্কিং লটে গুটি কয়েক বাংলাদেশীর উদ্যোগে তারা ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে অস্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণ করেন।

প্রায় প্রতি বছর বৈরী আবহাওয়া থাকা সত্বেও হিমাংকের নীচে তাপমাত্রায় (-২০-৩০ ডিগ্ৰী) তুষার ঝড়কে উপেক্ষা করে হাজার হাজার মানুষ অস্থায়ী শহীদ মিনারের বেদীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে আসেন।

এই অস্থায়ী শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন টরোন্টোর সিটি মেয়র, ফেডারেল মিনিস্টার, এম পি, এম পি পি, কাউন্সিলর, বাংলাদেশ হাই কমিশনের কনসাল জেনারেল সহ সমস্ত রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিক, বিভিন্ন আলাইমনি এসোসিয়েশন সহ সর্বস্থরের ব্যক্তিবর্গ।

২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃ ভাষা  দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পাবার পর টরোন্টোতে ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আদলে একটি স্থায়ী শহীদ মিনার স্থাপনের কাজ প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলেও তাজুল ইসলাম জানান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর