কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে একদিনের অভিযানে পাঁচ মোটর সাইকেল উদ্ধার, চোরচক্রের চার সদস্য গ্রেপ্তার


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার, ৫:৫৪ | বিশেষ সংবাদ 


কিশোরগঞ্জে একদিনের অভিযানে পাঁচ মোটর সাইকেল উদ্ধার এবং আন্তঃজেলা চোরচক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে দুইটি চোরাই মোটর সাইকেলসহ আন্তঃজেলা চোরচক্রের প্রধানসহ আব্দুল মতিন (২২), রুবেল (২৮), শাকিল আহমেদ (৩০) এবং নূরুল ইসলাম নূরু (৩২) নামে চোরচক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) বিকাল থেকে রোববার (২৬ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত কিশোরগঞ্জ এবং সিলেট জেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার এবং তাদের হেফাজত থেকে দুইটি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া আন্তঃজেলা চোরচক্রের চার সদস্যের মধ্যে আব্দুল মতিন সিলেট জেলার বিশ্বনাথপুর উপজেলার টেংরা গ্রামের মৃত আলকাস মিয়ার ছেলে, রুবেল একই জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলার রনকেলী গুলপাড়ার জিলান আহমেদ এর ছেলে, শাকিল আহমেদ দক্ষিণ সুরমা থানার বার্থখলা এলাকার মৃত খোরশেদ আলীর ছেলে এবং নূরুল ইসলাম নূরু গোলাপগঞ্জ উপজেলার ধারাবহর নালী বাড়ির সাকিব আলীর ছেলে।

এছাড়া পৃথক অভিযানে আরো তিনটি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গত ৩০ ডিসেম্বর দুপুরে কিশোরগঞ্জ শহরের তেরীপট্টি এলাকার প্রাইম ব্যাংকের সামনে থেকে জহির আলম নামে একটি বেসরকারি কোম্পানীতে কর্মরত কর্মকর্তার হিরো গ্লামার ১২৫ সিসি মোটর সাইকেল চুরি হয়। দীর্ঘ দিন নিজ উদ্যোগে খোঁজাখুজি করে চুরি যাওয়া মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করতে না পেরে শনিবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) এর নির্দেশনায় কিশোরগঞ্জ সদর সার্কেলের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অর্নিবান চৌধুরী ও কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুবকর সিদ্দিক পিপিএম এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে থানার পুলিশ পরিদর্শক (সিপি) জয়নাল আবেদীন এর নেতৃত্বে এসআই আমিরুল ইসলাম, কনস্টেবল আবু সাঈদ চৌধুরী ও কনস্টেবল মো. নাজমুল হোসাইন এর সমন্বয়ে একটি টিম শহরের বিভিন্ন এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে।

সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে চোর চক্রের প্রধান আব্দুল মতিনকে পুলিশ সনাক্ত করে। পুলিশি অনুসন্ধানে জানা যায়,  আব্দুল মতিনের বাড়ি সিলেট জেলার বিশ্বনাথপুর উপজেলার টেংরা গ্রামে হলেও মাস তিনেক যাবত সে কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের উকিলপাড়ার ভাসানী সড়কে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে কিশোরগঞ্জ শহরের মোটর সাইকেল চুরি করে আসছে।

পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে পুলিশ মতিনের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে শনিবার বিকাল ৩টার দিকে পাকুন্দিয়া গরুর হাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারের পর মতিনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে রাত ১টার দিকে শেলফি ব্রীজের মুখ থেকে শাকিলকে গ্রেপ্তার করে তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া গ্লামার মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করে পুলিশ।

পরবর্তীতে মতিন ও শাকিলের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতেই হুমায়ুন চত্বর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে রাত দুইটার দিকে চোরচক্রের অপর দুই সদস্য রুবেল ও নূরুল ইসলাম নূরুকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে রুবেলের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তার বাড়ির গোলাপগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কিশোরগঞ্জ থেকে চুরি করে নিয়ে যাওয়া একটি ডিসকাভার ১২৫ সিসি মোটর সাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক পিপিএম জানান, এই চোরচক্রে আরো কেউ রয়েছে কি-না, সে ব্যাপারে অনুসন্ধান চলছে। এছাড়া এ ব্যাপারে পরবর্তি আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর