কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জে লবণ নিয়ে গুজব ঠেকাতে তৎপর প্রশাসন, চার উপজেলায় জরিমানা


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:৫৮ | বিশেষ সংবাদ 


‘পেঁয়াজের মতো লবণের দামও বেড়ে যাচ্ছে’ কিশোরগঞ্জ জেলায় এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ার পর সোমবার (১৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা থেকে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর পর্যন্ত কিশোরগঞ্জজুড়ে লবণের দোকানগুলোতে ভিড় লেগে ছিল। লবণের দাম বাড়ার খবরে এ সময় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয়কারী খুচরা ও পাইকারি বাজারে সাধারণ মানুষের ভিড় বেড়ে যায়। প্রয়োজনে যারা আধা কেজি থেকে ১ কেজি লবণ কিনতেন তারাও লাইন ধরে কিনে নিয়ে যান ৫ থেকে ১০ কেজি করে লবণ।

অভিযোগ রয়েছে, এ সুযোগে অনেক অসাধু ব্যবসায়ী বেশি দামে লবণ বিক্রি শুরু করেন। এ অবস্থায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় মাঠে নামেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ। তিনি শহরের বাজারগুলোতে ঝটিকা অভিযান চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এছাড়া কিশোরগঞ্জ সদরসহ চার উপজেলা ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করে মোট দুই লাখ ৪১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে কিশোরগঞ্জ শহরের বড়বাজার এলাকার দুই লবণ ব্যবসায়ীকে মোট দেড় লাখ টাকা, কটিয়াদীতে ৪০ হাজার টাকা, মিঠামইনে ৩৫ হাজার টাকা এবং তাড়াইলে ১৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করার খবর পাওয়া গেছে।

এর মধ্যে কিশোরগঞ্জের বড়বাজারে অতিরিক্ত দামে লবণ বিক্রির দায়ে অজয় সাহা ও সুমন মিয়া নামে দুই লবণ ব্যবসায়ীকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এর মধ্যে সুমন স্টোরের মালিক সুমন মিয়াকে এক লাখ টাকা এবং সোনালী স্টোরের মালিক অজয় সাহাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বাজারে সিন্ডিকেট করে বেশি দামে লবণ বিক্রি হচ্ছে- এমন খবরে বড়বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কটিয়াদীতে তিন ব্যবসায়ীকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ইউএনও মোছা. আকতারুন নেছা। এর মধ্যে কটিয়াদী বাজারের লোকনাথ ভান্ডারে মজুত করা ১৪ বস্তা লবণ জব্দ ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং উপজেলার বানিয়াগ্রাম বাজারের দুই ব্যবসায়ীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বেশি দামে লবণ বিক্রি করার দায়ে মিঠামইন উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি জনসচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে।

তাড়াইলে চার ব্যবসায়ীকে মোট ১৬ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে তাড়াইল সদর বাজারের ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলামকে ১০ হাজার টাকা এবং পল্লব পাল, আলমগীর হোসেন ও ওমর ফারুক এই তিন ব্যবসায়ীর প্রত্যেককে ২ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর