কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ধান ক্ষেতে পাওয়া শিশুটি যাচ্ছে ছোটমণি নিবাসে


 স্টাফ রিপোর্টার | ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৫:৩৪ | বিশেষ সংবাদ 


তাড়াইলে ধান ক্ষেতে পাওয়া ফুটফুটে শিশুটিকে আজিমপুরের ‘ছোটমণি নিবাস’ এ পাঠানো হচ্ছে। রোববার (২০ অক্টোবর) দুপুরে কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ওবায়দা খানম শিশুটিকে আজিমপুরের ‘ছোটমণি নিবাস’ এ পাঠানোর জন্য নির্দেশনা দেন। আদালতের নির্দেশনা পাওয়ার পর বিকালে শিশুটিকে সেখানে পাঠানোর প্রস্তুতি নেয়া হয়।

তাড়াইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা শিশু কল্যাণ বোর্ড এর প্রধান মো. তারেক মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আদালতের আদেশ পাওয়ার পর আজই (রোববার) শিশুটিকে ‘ছোটমণি নিবাস’ এ পাঠানো হচ্ছে। শিশুটির পরিচর্যা ও ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নেয়ার জন্য তারা ১১টি লিখিত আবেদন পেয়েছিলেন বলেও তিনি জানিয়েছেন।

গত ১৫ অক্টোবর ভোরে তাড়াইল উপজেলার পুরুড়া উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন একটি ধান ক্ষেতে কাঁদছিল সদ্যোজাত শিশুটি। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে নবজাতকের কান্না শুনে গ্রামের সুফিয়া খাতুন খোঁজেন কান্নার উৎস। পরে তিনি পাশের ধান ক্ষেতে গিয়ে দেখতে পান, সদ্যোজাত ফুটফুটে এক শিশু সেখানে পড়ে রয়েছে।

সে সময় সেখানে আরো বেশ কয়েকজন ছুটে গেলেও পরম মমতায় সুফিয়া খাতুন বাচ্চাটিকে কোলে তুলে নেন। বাড়িতে নিয়ে গিয়ে শুরু করে শিশুটির সেবা-শুশ্রুষা। ধান ক্ষেতে নবজাতক পাওয়ার খবরে এলাকাবাসী তার বাড়িতে ভিড় করেন।

বাড়িতে নেয়ার পর থেকেই শিশুটি স্নেহ কাড়ে সবার। ঠাঁই পায় এক কোল থেকে আরেক কোলে। ধান ক্ষেতে পরিত্যক্ত অবস্থায় নবজাতক উদ্ধারের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

পরে শিশুটিকে দুপুরে তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা হয়। হাসপাতালের ভর্তি রেজিস্ট্রারে শিশুটির নাম দেয়া হয় ‘আবরার ফাহাদ’। অনেকেই শিশুটিকে দত্তক নেয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তাড়াইল থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমান জানান, উদ্ধারের সময় শিশুটির বয়স একদিন বা দেড়দিন ছিল। শিশুটিকে তাদের তাড়াইল হাসপাতালের পরিচর্যায় রাখা হয়েছিল। শিশুটির কোন স্বজন না থাকলেও উদ্ধারকারী নারী সুফিয়া খাতুন পরিচর্যার পাশাপাশি শিশুটির প্রতি সার্বক্ষণিক খেয়াল রাখেন। চিকিৎসক, নার্স ও স্টাফদের পরম মমতা ও ভালোবাসায় শিশুটি এখন প্রাণোচ্ছ্বল। তার কচি মুখে ফুটেছে হাসি।

রোববার (২০ অক্টোবর) দুপুরে আদালত থেকে শিশুটিকে আজিমপুরের ‘ছোটমণি নিবাস’ এ পাঠানোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী শিশুটিকে সেখানে পাঠানো হচ্ছে।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর