কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ট্রেনে কাটা পড়ে হাত-পা হারানো ছেলেটি মারা গেছে


 রাজীব সরকার পলাশ | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার, ৯:৩৮ | বিশেষ সংবাদ 


বাঁচলো না ছেলেটি। কয়েক ঘন্টা লড়ে হেরে গেলো। থেমে গেলো জীবনযুদ্ধ। অকালেই পৃথিবী থেকে হারিয়ে গেলো সহজ-সরল ছেলেটি। ট্রেনের ছাদ থেকে চাকার নিচে পড়ে এক হাত ও এক পা হারালেও বাঁচার আকুলতা ঝরে পড়েছিল তার চোখে-মুখে। কিন্তু বিধি বাম! অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে নির্জীব হয়ে পড়ে সে। এক পর্যায়ে ঢলে পড়ে মৃত্যুর কোলে। থেমে যায় একটি জীবনযুদ্ধের পাতা।

করুণ এই মৃত্যুর শিকার হওয়া ছেলেটির নাম মোবারক হোসেন (১৭)। বাড়ি কটিয়াদী উপজেলার চান্দপুর ইউনিয়নের কান্দাপুর মহিষাকান্দাপাড়ায়। গ্রামের ফুলু মিয়ার ছেলে মোবারক হোসেন ট্রেনে ফেরি করে চানাচুর বিক্রি করতো।

প্রতিদিনের মতো বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে ঢাকাগামী এগারসিন্ধুর এক্সপ্রেস প্রভাতী ট্রেনে চানাচুর বিক্রি করে কুলিয়ারচর স্টেশন থেকে  সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে ময়মনসিংহগামী বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনের ছাদে ওঠে মোবারক। ছাদের যাত্রীদের মধ্যে সে বিক্রি করছিল চানাচুর।

দুপুরে ট্রেনটি কিশোরগঞ্জ-ভৈরব রেললাইনের বাজিতপুর উপজেলার সরারচর এলাকার খালেকার ভাণ্ডা অতিক্রম করার সময় হঠাৎ পা ফসকে ট্রেনের ছাদ থেকে নিচে পড়ে যায় মোবারক। পিষ্ট হয় ট্রেনের চাকায়। এতে একটি হাত ও একটি পা কাটা পড়ে এবং অন্য পা টি গুরুতর জখম হয়।

স্থানীয়রা উদ্ধার করে ঢাকাগামী কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনে করে ঢাকায় পঙ্গু হাসপাতালে নেয়ার সময় পথে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে মোবারক। পরে রাত ৮টায় নামাজে জানাজা শেষে স্থানীয় গোরস্থানে লাশ দাফন করা হয়।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর