কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


ইউপি উপ-নির্বাচনে নৌকার টিকিট পেতে দৌড়ঝাঁপ


 স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:০৭ | কটিয়াদী 


কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার মসূয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি। এরইমধ্যে উপ-নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার লক্ষ্যে দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন প্রত্যাশীরা। স্থানীয় এমপি সাবেক আইজিপি নুর মোহাম্মদ এর বাসা ছাড়াও কেউ কেউ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন। গত ২৯ আগস্ট মসূয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী ভূঁইয়ার মৃত্যুতে পদটি শূন্য হয়।

উপ-নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা না হলেও নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীরা আগেই মাঠ সরগরম করে তুলেছেন। পোস্টার-ব্যানারে তুলে ধরছেন নিজ নিজ যোগ্যতা এবং দলের প্রতি ত্যাগ-তিতিক্ষার ফিরিস্ত। এতে যে কারো মনে হবে এই বুঝি উপ-নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে এলো।

জানা গেছে, মসুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা বেশ জমে উঠেছে। এখন পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে ছয় প্রার্থীর মাঠে থাকার বিষয়টি জানা গেছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা এখলাসছুজ্জামান বাবু, সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম রুমি ও আবুবক্কর সিদ্দিক, সাব্বির আহমেদ সুমন, ১নং ওয়ার্ডের সদস্য হাদিউল ইসলাম বুলবুল প্রমূখ।

আওয়ামী লীগ নেতা এখলাসছুজ্জামান বাবু বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় নির্যাতিত এবং বেশ কয়েকটি মামলায় তাকে হয়রানি হতে হয়েছে। এবার মসূয়া ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের বিষয়ে তিনি শতভাগ আশাবাদী বলে জানিয়েছেন এখলাসছুজ্জামান বাবু।

সাব্বির হোসেন সুমনের দিনরাত বিরামহীন প্রচার-প্রচারণায় এরইমধ্যে মুখরিত হয়ে উঠেছে মসূয়া ইউনিয়নের জনপদ। বসে নেই সাবেক চেয়ারম্যান আবুবক্কর সিদ্দিকও। তিনি প্রতিদিনই মসূয়া ইউনিয়নের কোথাও না কোথাও জনসংযোগ করছেন। একই সাথে গ্রামে উঠান বৈঠকে ভোটারদের সাথে মিলিত হচ্ছেন তিনি।

১নং ওয়ার্ডের সদস্য হাদিউল ইসলাম বুলবুল বলেন, প্রয়াত চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলীর রেখে যাওয়া উন্নয়নের অসমাপ্ত কাজ সুযোগ দিলে আমি করতে চাই।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর