কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


সরকারি জিল্লুর রহমান মহিলা কলেজের নতুন অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. জাকির হোসেন


 সোহেল সাশ্রু, ভৈরব | ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার, ৪:০৪ | ভৈরব 


সোহেল সাশ্রু, ভৈরব: সরকারি জিল্লুর রহমান মহিলা কলেজের নবযোগদানকৃত অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. জাকির হোসেন বলেছেন, ‘আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবে সরকারের অর্পিত দায়িত্ব সমূহ পালনে সর্বদা সচেষ্ট থাকবো।’ শুধু তাই নয়, ‘শিক্ষা নিয়ে গড়ব দেশ, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ এই শ্লোগানকে বাস্তবায়ন করতে সর্বদা কাজ করবেন তিনি। একই সাথে যাঁর নামে প্রতিষ্ঠিত এই মহিলা কলেজটি প্রয়াত রাষ্ট্রপতি আলহাজ্ব মো. জিল্লুর রহমানের সুনাম দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে দিতে এবং নারী শিক্ষার মানোন্নয়নে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। যেন একদিন সরকারি জিল্লুর রহমান মহিলা কলেজ থেকে শিক্ষার্থীরা সুশিক্ষা নিয়ে সমাজ এবং দেশকে আলোকিত করতে পারে। শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সরকারি জিল্লুর রহমান মহিলা কলেজে যোগদানের পর একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. জাকির হোসেনকে কলেজের শিক্ষকরা এবং বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানসহ শিক্ষার্থীরা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

প্রফেসর মো. জাকির হোসেন টাঙ্গাইলের করটিয়া সরকারি সা’দত কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি ১৪তম বিসিএস (শিক্ষা) এর মাধ্যমে ১৯৯৩ সালে কিশোরগঞ্জ সরকারি গুরুদয়াল কলেজে প্রভাষক হিসেবে চাকুরী জীবনে প্রবেশ করেন। পরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ ও নরসিংদী সরকারি কলেজসহ দেশের বিভিন্ন কলেজে কর্মরত ছিলেন তিনি। সর্বশেষ ২০১৮ সালে অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পান এবং চলতি মাসের ৫ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে অধ্যক্ষ হিসেবে সরকারি জিল্লুর রহমান মহিলা কলেজে যোগদান করেন প্রফেসর মো. জাকির হোসেন।

তিনি ১৯৬২ সালের ডিসেম্বরে নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার মোহিনীপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মো. মফিজ উদ্দিন ও মাতা আয়েশা খাতুন। তিনি ১৯৭৯ সালে রায়পুরা আর.কে.আর.এম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ১৯৮১ সালে রায়পুরা কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। ১৯৮৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক এবং ১৯৮৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। পারিবারিক জীবনে তিনি বিবাহিত ও ২ সন্তানের জনক। প্রফেসর মো. জাকির হোসেনের সহধর্মিনী সেলিমা আক্তারও অধ্যাপনা করেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর