কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পাকুন্দিয়ায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় জরিমানা, ড্রেজার মেশিন জব্দ


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৮ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, ৭:২১ | পাকুন্দিয়া  


কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার দায়ে তিনজনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত একটি ড্রেজার মেশিন জব্দ করা হয়। মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) ব্রহ্মপুত্র নদের পাঠানবাড়ী ঘাটে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে। বুধবার (২৮ আগস্ট) জরিমানার টাকা পরিশোধ করে ছাড়া পান তিন দণ্ডিত।

দণ্ডিত তিনজনই বালু উত্তোলন কাজের শ্রমিক। তারা হলেন, ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলার বালিপাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে পারভেজ(২৩), নান্দাইল উপজেলার চরবেলামারী গ্রামের নেওয়াজ আলীর ছেলে আলমগীর হোসেন (২৬) ও একই এলাকার কাজিম উদ্দিনের ছেলে কামরুল ইসলাম (৩০)।

জানা যায়, উপজেলার মির্জাপুর ও পাঠান বাড়ি ঘাট থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে একটি মহল। এতে নদী ভাঙ্গনসহ কৃষি জমির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে। এ নিয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক বরাবরে একাধিক লিখিত অভিযোগ করেন।

এ প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) দুপুরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে ব্রহ্মপুত্র নদের পাঠানবাড়ী ঘাটে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এসময় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় তিন শ্রমিককে আটক এবং বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত ড্রেজার মেশিন জব্দ করা হয়।

এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০এর ১৫/১ ধারায় ওই তিন শ্রমিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর