কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


পাকুন্দিয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে তিনজনের কারাদণ্ড


 স্টাফ রিপোর্টার | ২৭ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:২৩ | পাকুন্দিয়া  


পাকুন্দিয়ায় মাদরাসা শিক্ষার্থীদের উত্যক্ত ও মাদক সেবনের পৃথক দু’টি ঘটনায় সোহেল মিয়া (১৮), সজিব (১৬) ও ফয়সাল (১৬) নামের তিন তরুণকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান এসব কারাদণ্ডাদেশ দেন। দণ্ডিত তিন তরুণের মধ্যে সোহেল মিয়া উপজেলার পৌরসদরের টানলক্ষিয়া গ্রামের ছফুর উদ্দিনের ছেলে, সজিব পাটুয়াভাঙ্গা ইউনিয়নের জুনিয়াইল গ্রামের সুলতান উদ্দিনের ছেলে এবং ফয়সাল কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার চৌদ্দশত ইউনিয়নের দরবারপুর গ্রামের হারেছ মিয়ার ছেলে।

জানা যায়, মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) বেলা ১২টার দিকে মাদক সেবনের দায়ে টানলক্ষিয়া গ্রামের ছফুর উদ্দিনের ছেলে সোহেল মিয়াকে আটক করা হয়। পরে তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এদিকে সকাল ১১টার দিকে উপজেলার চকদিগা দাখিল মাদ্রাসার সামনে সজিব ও ফয়সাল নামে দুই বখাটে মাদরাসার ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করছিল। মাদরাসা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাহিদ হাসানকে অবগত করেন। পরে ইউএনও’র নির্দেশে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান থানা পুলিশ কে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান এবং ওই দুই বখাটেকে আটক করেন।

এসময় ওই দুই বখাটে মাদরাসার ছাত্রীদের উত্যক্ত করার অপরাধ স্বীকার করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সজিব ও ফয়সাল উভয়কে ১০ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এসময় পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মফিজুর রহমান, উপ-পরিদর্শক (এসআই) গোলাম মোন্তাছীর মারুফ, পাকুন্দিয়া পৌরসদর ভূমি অফিসের নাজির মো.শাহ আলম প্রমুখসহ স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম লুৎফর রহমান পৃথক দুটি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর