কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


কিশোরগঞ্জ ইতিহাস সম্মেলন


 মু আ লতিফ | ৩০ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ১:০৪ | আমাদের কিশোরগঞ্জ 


যাপিত জীবনে মানুষ কত কিছু করে। কিছু কিছু সৃজনশীল কাজ রয়েছে যে গুলো মানুষকে আনন্দ দেয়। এমনি একটি কাজের কথা আমারও মনে পড়ে, আমরা এই ক’বছর আগে অর্থাৎ ২০০৪ সালে জেলা পাবলিক লাইব্রেরি হলে ‘ইতিহাস সম্মেলন’র আয়োজন করেছিলাম।

এতে ঢাকা, রাজশাহীসহ জেলার বিভিন্ন এলাকার লেখক ও ইতিহাসবিদরা অংশ গ্রহণ করেছিলেন। দুইদিনব্যাপী ( ৮ই ও ৯ই জানুয়ারি) উক্ত সম্মেলনে কিশোরগঞ্জের সাহিত্যকর্ম ও ইতিহাসের বিভিন্ন অধ্যায় নিয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়েছিল।

সেই সম্মেলনে ৯ জন গুণী লেখককেও সম্মাননা প্রদান করা হয়েছিল। তাঁরা হলেন ফোকলোর সংগ্রাহক, গবেষক, বাংলা একাডেমির ফেলো মোহাম্মদ সাইদুর, ইতিহাসবিদ, গবেষক ও নাট্যকার মুহম্মদ বাকের, লেখক ও ইতহাসবিদ মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম, লেখক ও গবেষক মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, আঞ্চলিক ইতিহাস লেখক ও গবেষক মিসেস হাসনা আরা হাই ও  ইতিহাসবিদ, লেখক, শিক্ষাবিদ আবু তাহের মাস্টার।

উক্ত সম্মেলনের মূল সংগঠক ছিলেন মরহুম মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন শাহজাহান। আমাকে ওই সম্মেলনে সভাপতির দায়িত্ব পালন করতে হয়েছিল।

সম্মেলনে যে সব বিষয়ের উপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয় সে গুলো হলো একাত্তরে কিশোরগঞ্জে বর্বরতার কিছু খন্ডচিত্র, বাংলার আদি মহিলা কবি চন্দ্রাবতী, প্রাচীণ যুগে কিশোরগঞ্জের অবস্থান, কিশোরগঞ্জের মুদ্রা আবিস্কার মুসলিম ঐতিহ্য, কিশোরগঞ্জের চিত্রকলা ও ক্যালিওগ্রাফি চর্চা, হয়বৎনগর শিলালিপি, কিশোরগঞ্জে সাহিত্য সংস্কৃতি চর্চার গৌরবউজ্জ্বল ইতিহাস ইত্যাদি অন্যতম।

ওই সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ব বিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর ড. এ.কে.এম. ইয়াকুব আলী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর ড. আয়শা বেগম এবং একই বিভাগের প্রক্টর অধ্যাপক সিদ্দিকুর রহমান খাঁন।

কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক ফজলে কবির অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে গুণী ৯ জনের মধ্যে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।

এত সুন্দর ও কার্যকর একটি ইতিহাস সম্মেলন কিশোরগঞ্জে এই প্রথম অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেদিন ‘কিশোরগঞ্জ ইতিহাস সম্মেলন ২০০৪’ নামে আমার সম্পাদনায় একটি ‘স্মারক’ গ্রন্থ আমরা প্রকাশ করেছিলাম।

আসলে এমনি একটি সফল সম্মেলনের সঙ্গে জড়িত ছিলাম ভেবে আমার আজো হৃদয়ে শিহরণ জাগে।

অনেকদিন পর হলেও মোহাম্মদ সাইদুরের স্বপ্ন লোকশিল্প সংগ্রহশালা কিশোরগঞ্জে প্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেনে বুকটা ভরে উঠেছে। এ বিষয়ে গত ১১ই এপ্রিল (২০১৯) কিশোরগঞ্জ প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে এর নকসা প্রদর্শন ও অনুমোদন সভা হলো।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর এর ট্রাস্টি মফিদুল হক ও স্থপতি সাইফুল হক এতে উপস্থিত ছিলেন। অন্যদের সঙ্গে আমিও ওই সভায় বক্তৃতায় যারা এর উদ্যোগ নিয়েছেন তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি এবং এটি প্রতিষ্ঠিত হোক আশাবাদ ব্যক্ত করি।

আমার খুব ভালো লাগছে এই ভেবে যে এই গুণী ব্যক্তিটিকে ইতিহাস সম্মেলনে আমরা একদিন সম্মাননা জানাবার সুযোগ পেয়েছিলাম। (চলবে)




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর