কিশোরগঞ্জ নিউজ :: কিশোরগঞ্জকে জানার সুবর্ণ জানালা


দক্ষিণ আফ্রিকায় কিশোরগঞ্জের যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু


 অজিত দত্ত, অষ্টগ্রাম | ৬ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৬:৫৩ | প্রবাস 


দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রদীপ চন্দ্র দাস (৪২) নামে কিশোরগঞ্জের এক যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। প্রদীপ চন্দ্র দাস কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম উপজেলার সদর ইউনিয়নের আড়ারপার ঋষিপাড়া মনোরঞ্জন দাসের ছেলে। প্রদীপের মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান পরিবার।

পারিবারিক সূত্র জানায়, গত ২৭ মে দক্ষিণ আফ্রিকায় রহস্যজনকভাবে প্রদীপের মৃত্যু হয়। পরে বাংলাদেশ হাই কমিশনার বাংলাদেশে তার মরদেহ পাঠানোর ব্যবস্থা করে। গত ২ জুন ভোর রাতে পরিবারের পক্ষে ভাতিজা বিশ্বজিৎ ঋষি শাহজালাল আন্তজাতিক বিমানবন্দরে মরদেহ গ্রহণ করেন। ওইদিন সকালে মরদেহ অষ্টগ্রামে নিয়ে আসার পর দুপুরে পারিবারিক শ্মশানে শেষ কৃত্য সম্পন্ন হয়।

পরিবার জানায়, প্রদীপ দাস ১৮ বছর যাবত দক্ষিণ আফ্রিকায় কাননা ক্লিয়ারেন্স ফ্রি-স্টিটে নিজস্ব কসমেটিকস দোকানের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন। এ অবস্থায় হঠাৎ করে প্রদীপ দাসের মৃত্যুর খবর শুনে তার পরিবারের লোকজন তা বিশ্বাস করতে পারেনি। পরে তার ভগ্নিপতি দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী সন্তোষ মোহন ঋষি প্রদীপ দাসের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এলাকার ব্রাহ্মণ পুরোহিত সূধীর চক্রবর্তী জানান, প্রদীপ দাসের মাথায়, হাতে, পায়ের গীলায় সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য ক্ষতচিহ্ন দেখা গেছে।

প্রদীপ দাসের মৃত্যুর ঘটনা রহস্যজনক বলে পরিবারের ধারণা। বিষয়টিকে দুর্ঘটনা বলে চাপা দিলেও এটি পরিকল্পিত হত্যা বলে পরিবার পরিজন মনে করছেন।

প্রদীপ দাস নিহত হওয়ার আগের রাতে তার মা সুমিত্রা বালার সাথে প্রয়োজনীয় টাকা দেয়ার ব্যাপারে কথা বলেছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রদীপের ভাল ব্যবসা-বাণিজ্য ছিল বলে তার মা সুমিত্রা বালা জানান।

প্রদীপ দাস দক্ষিণ আফ্রিকায় অনেক পরিশ্রমের টাকা অর্জন করে সেখানে ব্যবসা দিয়েছিলেন। তার মা সুমিত্রাকে বলেছিলেন, কিছুদিনের মধ্যেই বাংলাদেশে এসে তিনি বিয়ে করবেন। কিন্তু শেষ ইচ্ছেটুকু আর পূরণ হল না।

প্রদীপ তার নিজ দেশে ঠিক ফিরলেন, তবে জীবিত নয় লাশ হয়ে। দেখা হল না তার প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের অষ্টগ্রামসহ পরিবার পরিজন ও আত্মীয় স্বজনদের। প্রদীপ ছিলেন মা-বাবার ছোট ছেলে।

প্রদীপ দাসের মৃত্যুতে তার মা সুমিত্রা বালা বার বার মুর্চ্ছা যান। করছেন পুত্রশোকে বিলাপ। প্রদীপের এই রহস্যজনক মৃত্যুতে তার মা সুমিত্রা বালা বাংলাদেশ সরকারের কাছে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে বিচারের দাবি জানিয়েছেন।




[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ি নয়। মতামত একান্তই পাঠকের নিজস্ব। এর সকল দায়ভার বর্তায় মতামত প্রদানকারীর]

এ বিভাগের আরও খবর